রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৪:৪৮ অপরাহ্ন

হঠাৎ অসুস্থ হয়ে রাবির এক শিক্ষার্থী মোটর সাইকেল ও প্রাইভেট কার ভাংচুর

হঠাৎ অসুস্থ হয়ে রাবির এক শিক্ষার্থী মোটর সাইকেল ও প্রাইভেট কার ভাংচুর

রাবি প্রতিনিধি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক শিক্ষার্থী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে মোটরসাইকেল ও প্রাইভেট কারসহ বিভিন্ন জিনিস ভাংচুর করেছে বলে জানা গেছে। সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র কলা ভবনে এ ঘটনা ঘটে। পরে শিক্ষার্থীরা তাকে নিবৃত করে পুলিশের মাধ্যমে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) পাঠায়। মেহেদী হাসান নামের ওই শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগ থেকে কয়েকদিন আগে মাস্টার্স পরীক্ষা সম্পন্ন করেছেন। প্রত্যক্ষদর্শী ও তার সহপাঠীরা জানান, কিছুদিন আগে মেহেদী আইন বিভাগ থেকে মাস্টার্স পরীক্ষা শেষ করেছেন। আগে এমন কোনো সমস্যা ছিল কি না আমরা জানি না। তবে মাস্টার্স পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে খুন দুঃশ্চিন্তায় ভুগছিলেন। গতকাল রোববার রাত থেকে বিভিন্ন অসঙ্গতিপূর্ণ আচরণ করতে দেখা যায়। সোমবার সকালেও ভালো ছিলো। কিন্তু হঠাৎ দুপুরের দিকে হাতে ইট ও হাতুড়ি নিয়ে রবীন্দ্র কলা ভবনের আশেপাশে ও ভিতরে ভাংচুর করে। এসময় তার হাতে থাকা ইট ও হাতুড়ি দিয়ে রবীন্দ্র কলা ভবনের সামনে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের এক শিক্ষকের প্রাইভেট কারের পিছনে গ্লাস এবং এক শিক্ষার্থীর মোটর সাইকেলের তেলের ট্যাংক ভাংচুর করে। এছাড়াও ভবনের ভিতরে ঢুকে বিভিন্ন রুমে জানালার গ্লাস ভাংচুর করে। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী ও পুলিশের যৌথ চেষ্টায় ওই শিক্ষার্থীকে নিবৃত করা হয়। এ ব্যাপারে মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ন কবির বলেন, ‘মেহেদী নামে আইন বিভাগের এক শিক্ষার্থী মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ভাংচুর করছিলো। তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য রামেকে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মজিবুল হক বলেন, ‘খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) স্থানান্তর করা হয়।


Share this post in your social media

© VarsityNews24.Com
Developed by TipuIT.Com