রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ০৩:১৪ পূর্বাহ্ন

লাঞ্ছনার প্রতিবাদে রামেক ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি

লাঞ্ছনার প্রতিবাদে রামেক ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি

রামেক প্রতিনিধি : একজন রোগীর মৃত্যুর জন্য চিকিৎসকদের দায়ী করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভাঙচুর ও চিকিৎসকদের লাঞ্ছিত করা হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে ইন্টার্ন চিকিৎসকেরাও বিক্ষোভ করেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে তাঁদের কয়েকজন পুলিশের হাতেও লাঞ্ছিত হন। এ ঘটনার পর থেকে কর্মবিরতি পালন করছেন ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা। এতে ব্যাহত হচ্ছে হাসপাতালটির চিকিৎসাসেবা। ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা প্রথমেই জরুরি বিভাগের চিকিৎসা বন্ধ করে দেয়। তাদের বাধার মুখে লাশও নিয়ে যেতে পারেন নি স্বজনেরা। ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা হাসপাতালের অক্সিজেনের পাইপ খুলে দিলে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়। তখন অনেক রোগীই জরুরি বিভাগ থেকে ফিরে যান। বেলা পৌনে দুইটার দিকে হাসপাতালের ২ নম্বর ওয়ার্ডে রাজশাহী নগরের টিকাপাড়ার ব্যাংক কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেন খান মারা যান। তাঁর স্বজনদের অভিযোগ, চিকিৎসকদের অবহেলার কারণেই তাঁর মৃত্যু হয়। ৯ এপ্রিল ২০১৬ থেকে মোশাররফ হোসেন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা বলে, রোগীকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হয়। কিন্তু রোগীকে জরুরি বিভাগে নিয়ে যেতেই রোগী মারা যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলে, রোগীর মৃত্যুর পরই তাঁর স্বজনেরা উত্তেজিত হয়ে ওঠে। তারা হাসপাতালের ওয়ার্ডে ঢুকে সহকারী রেজিস্ট্রার সুব্রতকে লাঞ্ছিত করে ও শিক্ষানবিশ চিকিৎসক আরিফের গায়ে হাত তোলে। ভাঙচুর শুরু করে ওয়ার্ডের ভেতরে। এরপর শিক্ষানবিশ চিকিৎসকেরা হাসপাতালের ভেতরে পাল্টা বিক্ষোভ ও ভাঙচুর শুরু করে। একপর্যায়ে ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা রোগীর স্বজনদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। হাসপাতালের অক্সিজেনের লাইন খুলে দিয়ে জরুরি বিভাগ বন্ধ করে দেয়। পরে অবশ্য শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদেরই কয়েকজন অক্সিজেনের পাইপ লাগিয়ে দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে চিকিৎসকদের বিক্ষোভ প্রশমিত করার চেষ্টা করে। তখন পুলিশ রায়হান নামের এক শিক্ষানবিশ চিকিৎসককে মারধর ও আরও কয়েকজনকে ধাক্কা দেয় বলে বলে অভিযোগ। এ নিয়ে চিকিৎসকেরা নতুন করে পুলিশের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু করেন। ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা জরুরি বিভাগের সামনে জড়ো হয়ে দায়ী পুলিশ সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও ঘটনা তদন্তের দাবি জানায়।


Share this post in your social media

© VarsityNews24.Com
Developed by TipuIT.Com