রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৫:১১ পূর্বাহ্ন

রোহিঙ্গাদের না বলা গল্প নিয়ে আলোকচিত্র ও শিল্পকর্ম প্রদর্শনী

রোহিঙ্গাদের না বলা গল্প নিয়ে আলোকচিত্র ও শিল্পকর্ম প্রদর্শনী

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি : নির্মেঘ ফাউন্ডেশন এবং আর্ট ফর কজ : পার্ট-১ এর উদ্যোগে এবং ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পৃষ্ঠপোষকতায় রাজধানীর দৃক গ্যালারীতে আগামী ১৩-১৫ জুলাই ২০১৮ “রোহিঙ্গাদের না বলা গল্প” শিরোনামে এক শিল্পকর্ম প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। রোহিঙ্গা সংকটকে উপজীব্য করে রাজধানীর বিভিন্ন স্কুলের চিত্রশিল্পী, আলোকচিত্রী এবং গ্রাফিক ডিজাইনারদের সমন্বয়ে গঠিত ২৫ সদস্যের একটি দল তাদের মেধা আর সৃজনশীলতা দিয়ে দক্ষ তুলির আঁচড়ে রোহিঙ্গাদের আবেগ-অনুভূতি, সংগ্রাম ও বেঁচে থাকার নিদারুন অর্থকষ্টের সেসব চিত্র তুলে ধরেছেন।

১১ জুলাই বুধবার রাজধানীর সোবহানবাগে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৭১ মিলনায়তনে আয়োজিত “আর্ট ফর কজ : পার্ট-১ “রোহিঙ্গাদের না বলা গল্প” শিরোনামে আয়োজিত ‘মিট দ্যা প্রেস’ অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানানো হয় । আয়োজনের বিস্তারিত তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ‘আর্ট অব কজ’ এর প্রধান দুই উদ্যোক্তা গ্রীন হেরাল্ড স্কুলের শিক্ষার্থী মো. শাদাব নাভিদ ও দীপ্ত বিশ্বাস, নির্মেঘ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও ইন্টারন্যাশনাল তার্কিস হোপ স্কুলের ও লেভেল শিক্ষার্থী ফারিয়া সাফা খান, ম্যাপল লিফ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের এ লেভেল শিক্ষার্থী সাদাৎ আনোয়ার ও স্কলাসটিকা স্কুলের এ লেভেল শিক্ষার্থী জেরিন সুবাহ রোদেলা। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্টস অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক সৈয়দ মিজানুর রহমান, উর্ধ্বতন সহকারী পরিচালক (মিডিয়া ল্যাব) শেখ মো. আব্দুর রাজ্জাক, উর্ধ্বতন সহকারী পরিচালক (জনসংযোগ) মো. আনোয়ার হাবিব কাজল প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, তিনদিনব্যাপী এ আয়োজনের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, এমপি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার ও ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভাসিটির সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. এম গোলাম রহমান। এ আয়োজনের প্রধান পৃষ্ঠােপষক ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও স্ট্র্যাটিজিক পার্টনার হচ্ছে নির্মেঘ ফাউন্ডেশন।

সংবাদ সম্মেলনে আর্ট ফর কজ-এর প্রেসিডেন্ট ও গ্রীন হ্যারাল্ড স্কুলের এ লেভেলের শিক্ষার্থী শাদাব নাভিদ বলেন, আর্ট অব কজ ফাউন্ডেশনের সদস্য রাজধানীর বিভিন্ন ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের ৪০জন শিক্ষার্থী বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শিবিরে দুই দফায় পরিদর্শণে গিয়েছিল এবং সেখান থেকে ফিরে এসে তারা রোহিঙ্গাদের অবর্ণনীয় জীবনচিত্র ক্যানভাসে ফুটে তোলে। সেখান থেকে নির্বাচিত ২৫জনের শিল্পকর্ম নিয়ে দৃক গ্যালারিতে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। এসব শিল্পকর্ম বিক্রির সমুদয় অর্থ রোহিঙ্গাদের সাহায্যার্থে নির্মেঘ ফাউন্ডেশনকে দেয়া হবে বলে জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, শুধু রোহিঙ্গা সমস্যা নয়, যেকোনো সামাজিক সমস্যা নিয়ে আর্ট ফর কজ ফাউন্ডেশন কাজ করবে। আর্ট ফর কজের কর্মকা- সারাবিশ্বে ছড়িয়ে দিতে চান বলে জানান এই তরুণ উদ্যোক্তা।

অন্যদিকে নির্মেঘ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও ইন্টারন্যাশনাল তার্কিস হোপ স্কুলের এ লেভেল শিক্ষার্থী ফারিয়া সাফা খান বলেন, ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ছেলেমেয়েদের মধ্যে কোনো দেশপ্রেম নেই, তারা দেশের জন্য কিছু করে না, বেশিরভাগ ছেলেমেয়ে দেশের বাইরে চলে যায়- এরকম নানা অভিযোগ শোনা যায়। এসব অভিযোগ যে সত্য নয় সেটার প্রমাণ এই ‘রোহিঙ্গাদের না বলা গল্প’ প্রদর্শনী। এর মাধ্যমে ইংলিশ মিডিয়ামের শিক্ষার্থীদের ব্যাপারে মানুষের ভুল ভাঙবে বলে তিনি মনে করেন। ফারিয়া আশা প্রকাশ করেন, তাদের দেখে অন্যান্য ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের শিক্ষার্থীরাও দেশের কল্যাণে, মানুষের কল্যাণে বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা নিয়ে কাজ করবে। তিন দিনের এই শিল্প প্রদর্শনীতে দেশের বরেণ্য চিত্রশিল্পী, ভাস্কর ও কণ্ঠশিল্পীরা অংশ নেবেন বলে জানান তিনি। ফারিয়া বলেন, এ প্রদর্শনী থেকে অর্জিত সমুদয় অর্থ রোহিঙ্গাদের সাহায্যার্থে ব্যায় করা হবে।

বর্তমান বিশ্বের সমস্যাগুলোকে শিল্প-সংস্কৃতির মাধ্যমে মোকাবেলা করতে কাজ করে আর্ট অব কজ ফাউন্ডেশন। যেসব মানুষ জাতিগত নির্যাতনের শিকার হয়ে ঘরবাড়ি হারিয়েছে এবং পালিয়ে এসেছে বাংলাদেশে একটি নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে তাদের জীবনের না-বলা গল্পগুলো তুলে ধরাই এই ফাউন্ডেশনের উদ্দেশ্য। বেদনাদায়ক রোহিঙ্গা সমস্যা ইতোমধ্যে হাজার হাজার নারী, পুরুষ ও শিশুর মৃত্যু ঘটিয়েছে। যারা বেঁচে আছে তারা বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় আছে এবং বাধ্য হয়ে চোখের সামনে তাদের পরিবারের ওপর নেমে আসা নির্যাতন দেখছে। তাদের নাগরিকত্ব কেড়ে নেয়া হয়েছে, তাদেরকে খাদ্য, বাসস্থান, চিকিৎসার মতো মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। এই মৃত্যু উপত্যকায় দাঁড়িয়ে তারা বিশ্ববাসীর প্রতি হাত বাড়িয়েছে সাহায়্যের আশায়। প্রকৃতপক্ষে, রোহিঙ্গা সমস্যাটি সমগ্র মানবজাতির বিবেকের ওপর এক নিদারুণ অত্যাচার।

‘আর্ট ফর কজ’ হচ্ছে গ্রীন হ্যারাল্ড স্কুলের গ্রেড ১২ এর শিক্ষার্থী মো. শাদাব নাভিদ ও দীপ্ত বিশ্বাস এর যৌথ উদ্যোগ। আয়োজন সর্ম্পকে তারা বলেন, রোহিঙ্গারা কি অমানবিক ও মানবেতরভাবে জীবনযাপন করছে, তা বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরাই আমাদের এ আায়োজনের মূল উদ্দেশ্য। সবাই বলে রোহিঙ্গাদের এ দুর্দশা লাগব করার জন্য সঠিক পদক্ষেপ নেয়া অত্যন্ত জরুরী, কিন্তু কেউই কজের কাজ কিছুই করছে না। তাই রোহিঙ্গাদের করুন দূর্দশার চিত্র বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরতে আমরা রংতুলি হাতে তুলে নিয়েছি এবং আমাদের মেধা, সৃজনশীলতা ও সামর্থ্যের সর্বোচ্চটা উজার করে দিয়ে রোহিঙ্গাদের বাস্তব চিত্র তুলে আনার চেষ্টাটাই আমরা করেছি। ছবি কথা বলে এবং ছবিই যোগাযোগের অন্যতম গুরুত্বপূর্ন মাধ্যম বিবেচনা করেই বিশ্ববাসীর দৃষ্টি আকর্ষণে শিল্পকর্ম প্রদর্শনীকে বেছে নিয়েছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান আয়োজনের অন্যতম উদ্যোক্তা শাদাব নাভদ। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন Facebook Page: Art of Cause অথবা বা শাবাদ নাভিদের মোবইলে ফোন নাম্বারে ০১৬১৮৮৬১৩৩৩।


নিউজটি অন্যকে শেয়ার করুন...

আর্কাইভ

business add here
© VarsityNews24.Com
Developed by TipuIT.Com