শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ১০:০০ পূর্বাহ্ন

রাবিতে ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ

রাবিতে ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ

রাবি প্রতিনিধি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬ মার্চ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের নবীনবরণ কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে উপাচার্য প্রফেসর এম আব্দুস সোবহান নবাগত শিক্ষার্থীদের মধ্যে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের ছাত্র শুভ বিশ্বাস এবং প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী কোয়ান্টাম কৈবর্ত্য’কে ফুলের তোড়া উপহার দিয়ে বরণ করে নেন। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার অন্যতম শীর্ষ পীঠস্থান। এর প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা দেশ-বিদেশে নিজ নিজ ক্ষেত্রে সাফল্যের স্বাক্ষর রেখে চলেছে। তাদের অনেকে রাষ্ট্র ও সরকারের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বও পালন করেছে। যুগের চাহিদা পূরণে এখানে নতুন নতুন বিভাগ খোলা ও কোর্স-কারিকুলাম হালনাগাদ করা হয়েছে। ফলে এখানে ভর্তির জন্য প্রতিযোগিতার সৃষ্টি হয়েছে। তাই মেধাবীদের মধ্যে অন্যতম মেধাবীরাই এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। উপাচার্য তাঁর বক্তৃতায় নবীন শিক্ষার্থীরা আগামী দিনগুলিতে লেখাপড়ায় সেই মেধার স্বাক্ষর অক্ষুন্ন রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উপাচার্য আরো বলেন, একজন গর্বিত, সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে হলে প্রয়োজন সত্য ও ন্যায়ের লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়া; নিজ কর্মে নৈতিকতাবোধের প্রতিফলন ঘটানো। আজকের এই নবীন শিক্ষার্থীরা আগামী দিনের বাংলাদেশে সেই নৈতিকতার অন্যতম ধারক ও বাহক হয়ে উঠবে। তিনি আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার পাশাপাশি মুক্তবুদ্ধি চর্চার আদর্শ অঙ্গন। এখানে জাতির জন্য অশুভ কিছুর স্থান নেই। যে শিক্ষা মানুষের শুভবোধকে উন্মোচিত করে, চেতনাকে করে দেশপ্রেমে উদ্ভাসিত, নিজ মেধা ও অভিজ্ঞতাকে মানবতার কল্যাণে ধাবিত করে সেই শিক্ষার পবিত্র ক্ষেত্র এই বিশ্ববিদ্যালয়। উপাচার্য সকলকে সদা সত্য, সুন্দর ও কল্যাণের পথে থাকার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে ছাত্র-উপদেষ্টা প্রফেসর জান্নাতুল ফেরদৌস স্বাগত বক্তৃতা করেন। সেখানে নবাগত শিক্ষার্থী আইন বিভাগের নাইম হক ও অর্থনীতি বিভাগের নিসাদ সাঈদা বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নবীনবরণ ২০১৭-২০১৮ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা। এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান আল-আরিফ। সেখানে অন্যান্যের মধ্যে জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক প্রফেসর প্রভাষ কুমার কর্মকার, প্রক্টর প্রফেসর মো. লুৎফর রহমান, অধিকর্তা, সভাপতি, ইনস্টিটিউট পরিচালকসহ বিশিষ্ট শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর এম এ বারী অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। নবীনবরনের শেষ পর্বে ছিল শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের পরিবেশনায় এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। প্রসঙ্গত, নবীন শিক্ষার্থীদের জন্য ‘তথ্য কণিকা’ শীর্ষক পুস্তক এদিন প্রকাশিত হয়।


নিউজটি অন্যকে শেয়ার করুন...

আর্কাইভ

business add here
© VarsityNews24.Com
Developed by TipuIT.Com