রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৫:০২ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশের পঞ্চাশ বছরের গল্প-গল্পকারের নাম ও গ্রন্থ তালিকা

বাংলাদেশের পঞ্চাশ বছরের গল্প-গল্পকারের নাম ও গ্রন্থ তালিকা

অজিত কুমার নিয়োগী : ধূসরলিপি (১৯৬৪)। অদিতি ফাল্গুনী : ইমানুয়েলের গৃহে প্রবেশ (১৯৯৯), তিতা মিঞার জঙ্গনামা (২০০৯), চিহ্নিত বারুদ বিনিময় (২০০৭), বানিয়ালুকা ও অন্যান্য গল্প (২০১৩), ধৃত-রাষ্ট্রের বালিকারা (২০১৪)। অনামিকা হক লিলি : নিলম্বন (১৯৮৩), ব্যঞ্জনা (১৯৮৪), যাতনা (১৯৮৮), অষ্টপ্রহর (১৯৯০), কুরে কুরে (১৯৯১), আমি তোমাদেরই লোক (২০০২), কলম তুমিই বলো (২০০৩)। অরূপ তালুকদার : রংবাজ ফেরে না (১৯৬৯)। আ. ন. ম. বজলুর রশীদ : পথ ও পৃথিবী (১৯৬৪)। আকবরউদ্দীন : অসমাপ্ত কাহিনী ও অন্যান্য গল্প। আকবর হোসেন : আলোছায়া (১৯৬৪)। আকমল হোসেন নিপু : জলদাসের মৎস্যঘ্রাণ (১৯৯৮), বুড়ি চাঁদ ডুবে যাবার পরে (২০০৩), আমরা খুব খারাপ সময়ে বেঁচে আছি (২০০৬)। আখতারুজ্জামান ইলিয়াস : অন্য ঘরে অন্য স্বর (১৯৭৬), দুধভাতে উৎপাত (১৯৮৫), খোঁয়ারি (১৯৮৯), দোযখের ওম্ (১৯৮৯), জাল স্বপ্ন স্বপ্নের জাল (১৯৯৭)। আজিজুর রহমান : কালো ফিতা (১৯৬৫), দেশী ফুল (১৯৬৫), একটি অচল আনি (১৯৬৬), উপস্থিত সুধীম-লী (১৯৭৮), পা-ুলিপি ও গয়নার বাক্স (১৯৭০), স্বনির্বাচিত গল্প (১৯৭৮), বুনোবৃষ্টি (১৯৮৪), নিজের বাড়ি (১৯৮৮)। আতা সরকার : বিপজ্জনক খেলা সম্পর্কে রিপোর্ট, নিষিদ্ধ রাজনীতির গল্প, সুন্দর তুমি পবিত্রতম, ব্রেকহীন বাস চলছে চলছে (১৯৯৭), সাহসী মানুষের গল্প, নির্বাচিত গল্প, রে স্বপ্ন রে দুবৃত্ত। আফলাতুন : অলৌকিক পাখি (১৯৮৮)। আবুল খায়ের মুসলেহউদ্দিন : চিরকুট (১৯৮১), নেপথ্য নাটক (১৯৮২), ওম শান্তি (১৯৮৩),শালবনের রাজা (১৯৮৩), নলখাগড়ার সাপ (১৯৮৩), মুক্তিযুদ্ধের গল্প (১৯৯৬), আনন্দ ভুবন (১৯৯৭), মনোনীত গল্প (১৯৯৩), সোনার শরীর (১৯৯০), কলেজ গার্ল (১৯৯১), নীল ছবির নায়িকা (১৯৯০), নির্বাচিত প্রেমের গল্প (১৯৮৮)। আবদার রশীদ : নানান রঙ্গ (১৯৭৩) ও রঙ্গ ষোড়শী (১৯৭৫)। আবদুর রশীদ ওয়াসেকপুরী : অলিগলি কতপথ (১৯৫৯)। আবদুল গাফফার চৌধুরী : কৃষ্ণপক্ষ (১৩৩৬), সম্রাটের ছবি (১৯৫৯), সুন্দর হে সুন্দর (১৯৬০)। আবদুল মান্নান সৈয়দ : সত্যের মতো বদমাশ (১৯৬৮), মৃত্যুর অধিক লাল ক্ষুধা (১৯৭৭), চলো যাই পরোক্ষে (১৯৭৩), গল্প ১৯৬৪ (১৯৭০), নির্বাচিত গল্প (১৯৮৭), মাছ মাংস মাৎসর্যের রূপকথা (২০০২), কেন আসিলে ভালোবাসিলে (২০১০)। আবদুল হাই মাশরেকী : কুলসুম (১৯৫৪), বাউল মনের নকশা (১৯৭১)। আবদুশ শাকুর : ক্ষীয়মান (১৯৬১), এপিটাফ (১৯৭৬), ধস (১৯৮২), বিচলিত প্রার্থনা (১৯৮৩), নৈসর্গিক গল্প (১৯৯৭), গোলাপধোলাই (১৯৯৭), গল্পসমগ্র (২০০২), আঘাত (২০০৬), টোটকা (২০০৬)। আবুবকর সিদ্দিক : ভূমিহীন দেশ (১৯৮৫), মরে বাঁচার স্বাধীনতা (১৯৮৭), চরবিনাশকাল (১৯৮৭), কুয়ো থেকে বেরিয়ে (১৯৯৪), ছায়াপ্রধান আঘ্রান (২০০০), কান্নাদাসী (২০০৬), বামাবর্ত (২০০৭), মুক্তিলাল অভ্যুদয় (মুক্তিযুদ্ধের নির্বাচিত গল্প) (২০০৮), কালোকুম্ভীর (২০০৮), হংসভাসীর তীরে (২০০৮), শ্রেষ্ঠ গল্প (২০০৭), গল্পসমগ্র ১ম খ- (২০০৮)। আতোয়ার রহমান : হলদে লতা (১৯৬৪), বলয় (১৯৬৭)। আন্ওয়ার আহমদ : সতর্ক প্রহরা (১৯৮৩)। আনোয়ার পাশা : নিরূপায় হরিণী (১৯৭০)। আনিস চৌধুরী : গল্পসংগ্রহ (২০০৭)। আবু ইসহাক : হারেম (১৯৬২), মহাপতঙ্গ (১৯৬৩)। আবু জাফর শামসুদ্দীন : জীবন (১৯৪৮), শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৬২), শেষ রাত্রির তারা (১৯৬৬), এক জোড়া প্যান্ট ও অন্যান্য (১৯৬৭), রাজেন ঠাকুরের তীর্থযাত্রা (১৯৭৮), ল্যাংড়ী (১৯৮৪), নির্বাচিত গল্প (১৯৮৮)। আবুল ফজল : মাটির পৃথিবী (১৯৪০), আয়ষা (১৯৫১), শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৬৪), নির্বাচিত গল্প (১৯৭৮), মৃতের আত্মহত্যা (১৯৭৮)। আবুল মনসুর আহমদ : আয়না (১৯৩৫), ফুড কনফারেন্স (১৯৪৪), আসমানী পর্দা (১৯৬৪)। আবু রুশ্দ : রাজধানীতে ঝড় (১৯৩৮), প্রথম যৌবন (১৯৪৮), শাড়ী বাড়ী গাড়ী (১৯৬১), মহেন্দ্র মিষ্টান্ন ভা-ার (১৯৮৫), স্বনির্বাচিত গল্প (১৯৭৯), দিন অমলিন (১৯৮৫), বিয়োগ ব্যথা (১৯৯৬), নির্বাচিত গল্প (১৯৯০), গল্পসমগ্র (২০০০)। আল মাহমুদ : পানকৌড়ির রক্ত (১৯৭৫), সৌরভের কাছে পরাজিত (১৯৮৩), গন্ধবণিক (১৯৮৬), প্রেমের গল্প (১৯৯১), ময়ূরীর মুখ (১৯৯৪), আল মাহমুদের গল্প (১৯৯১), গল্পসমগ্র (১৯৯৭)। আলাউদ্দিন আল আজাদ : জেগে আছি (১৯৫০), ধানকন্যা (১৯৫১), মৃগনাভি (১৯৫৩), অন্ধকার সিঁড়ি (১৯৫৮), উজান তরঙ্গে (১৯৬২), যখন সৈকত (১৯৬৭), আমার রক্ত স্বপ্ন আমার (১৯৭২), জীবন জমিন (১৯৮৮), নির্বাচিত গল্প (১৯৮৫), মনোনীত গল্প (১৯৮৭), শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৮৭), শ্রেষ্ঠ ছোটগল্প (১৯৯৯)। আশরাফ উজ জামান : অরণ্য পর্বত নদী ও সমুদ্র (১৯৪৯), খেয়া নৌকার মাঝি (১৯৫২)। আশরাফ সিদ্দিকী : রাবেয়া আপা (১৯৫৫), প্যারিস সুন্দরী (১৯৭৫), শেষ নালিশ (১৯৯২)। আশীষকুমার লোহ : অনেক তারার আকাশ (১৯৬৬)। আহমদ ছফা : দোলা আমার কনকচাঁপা (১৯৬৮)। এছাড়া নিহত নক্ষত্র (১৯৬৯), বুলবুল চৌধুরী (জ. ১৯৪৭), টুকা কাহিনী (১৯৬৮), পরমানুষ (১৯৯৭), নির্বাচিত গল্প (১৯৯৭) তাঁর গল্পগ্রন্থ। আহমদ মীর : লালমোতিয়া (১৯৬৫)। আহমদ রফিক : অনেক রঙের আকাশ (১৯৬৪)। আহমাদ মোস্তফা কামাল : এক প্রকার দ্বিতীয় মানুষ (১৯৯৮), আমরা একটি গল্পের জন্য অপেক্ষা করছি (২০০০), অন্ধকারে কিছুই দেখা যাচ্ছে না বলে (২০০৪), ঘরভর্তি মানুষ অথবা নৈঃশব্দ্য (২০০৭)। ইমতিয়ার শামীম : শীতঘুমে একজীবন (১৯৯৬) এরপর গ্রামায়নের ইতিকথা (২০০০), কয়েকটি মৃত মুনিয়া (২০০২), মাৎসন্যায়ের বাকপ্রতিমা (২০০৫)। ইমদাদুল হক মিলন : ভালোবাসার গল্প (১৯৭৭), নিরন্নের কাল (১৯৭৯), প্রেমের গল্প (১৯৮৩), হে প্রেম (১৯৮৩), ফুলের বাগানে সাপ (১৯৮৩), বালিকারা (১৯৮৩), আহারী (১৯৮৪), তোমাকে ভালোবাসি (১৯৮৫), নির্বাচিত প্রেমের গল্প (১৯৮৫), বাছাই গল্প (১৯৮৬), তাহারা (১৯৮৬), মর্মবেদনা (১৯৮৮), প্রেম নদী (১৯৮৮), প্রেমিক প্রেমিকা (১৯৮৮), বারো রকম মানুষ (১৯৮৮), ভালোবাসার নির্বাচিত গল্প (১৯৮৯), যদি জানতে (১৯৯০), প্রেম ভালোবাসা (১৯৯০), ভালোবাসা (১৯৯০), শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৯০), গোপন দুয়ার। ইফফাত আরা :  রোদনভরা বসন্ত (১৯৮৯), নোনাস্বাদের জীবন (১৯৯০), একাকী অন্ধকারে (১৯৯৪)। ইবরাহীম খাঁ :  আলু বোখরা (১৯৬০), উস্তাদ (১৯৬৭), দাদুর আসর (১৯৭১), মানুষ। ইসহাক চাখারী :  জানালা (১৯৬৭), স্বপ্নের কুশীলব (১৯৬৭), প্রথম কৃষ্ণচূড়া (১৯৭২), বিপরীত মানুষ (১৯৭৭)। এহসান চৌধুরী :  একাত্তরের গল্প (১৯৮৬)। ওয়াসি আহমেদ : বীজমন্ত্র, তেপান্তরের সাঁকো, শিঙা বাজাবে ইসরাফিল (২০০৬)। কাজি আফসার উদ্দিন আহমদ: কোলাহল (১৯৪৭), কালনাগিনী (১৯৫২), জ্বালাও আলো (১৯৫৪), যুদ্ধের ভয়ঙ্কর গল্প (১৯৫৪), নূতন প্রেম (১৯৫৫)। কাজী ফজলুর রহমান : দর্পণে প্রতিবিম্ব (১৯৮৭), যাত্রী (১৯৮৭), মুক্তিযুদ্ধের গল্প (১৯৮৮), বিশ্বাসঘাতক (১৯৯১)। কামরুজ্জামান জাহাঙ্গীর : মৃতের কিংবা রক্তের জগতে আপনাকে স্বাগতম (২০০৫), স্বপ্নবাজি (২০০৭)। কায়েস আহমেদ : অন্ধতীরন্দাজ (১৯৭৮), লাশ কাটা ঘর (১৯৮৭)। খালেদা এদিব চৌধুরী : অন্য এক নির্বাসন (১৯৭৬), জন মনিষ্যির গল্প (১৯৮২), পোড়ামাটির গন্ধ (১৯৮৫)। গজনফর আলী : ভাববিলাস (১৯৫৭)। চৌধুরী শামসুর রহমান : ফুটপাত (১৯৬০)। জহির রায়হান : জহির রায়হানের গল্পসমগ্র (১৯৭৯)। জাকির তালুকদার : স্বপ্নপুরাণ কিংবা উদ্বাস্তুপুরাণ (১৯৯৭), বিশ্বাসের আগুন (২০০০), কন্যা ও জলকন্যা (২০০৩), কল্পনা চাকমা ও রাজার সেপাই (২০০৬), হা-ভাতভূমি (২০০৬) ও মাতৃহন্তা ও অন্যান্য গল্প (২০০৭)। জাফর তালুকদার : অন্নদাস (১৯৯০), মানুষের গন্ধ (১৯৯০), প্রেমের গল্প (১৯৯১), নির্বাচিত গল্প (২০০৪)। জুলফিকার মতিন : রাখ তোমার উদ্যত বাহু (১৯৯৯), পাগল হবার রূপকথা (১৯৯৯), আকাশ বাসর (১৯৯৯), অন্যরকম (২০০০), মুক্তিযুদ্ধের গল্প (২০০১), অন্ধকারের জন্তুরা (২০০৭)। জুবাইদা গুলশান আরা : কায়াহীন কারাগার (১৯৭৭), বাতাসে বারুদ রক্তে নিরুদ্ধ উল্লাস (১৯৮৬), হৃদয়ে বসতি (১৯৮৯)। জ্যেতিপ্রকাশ দত্ত : দুর্বিনীত কাল (১৯৬৫), বহে না সুবাতাস (১৯৬৭), সীতাংশু তোর সমস্ত কথা (১৯৬৯), পুনরুদ্ধার, প্লাবনভূমি, উড়িয়ে নিয়ে যা কালো মেঘ (১৯৯২), ফিরে যাও জ্যোৎস্নায়, নির্বাচিত গল্প, গল্পকল্প ও বাঁচামরার জীবন (২০০৫), যে যায় সে যায় (২০১২)। জোবেদা খানম : খুকুর এ্যাডভেঞ্চার (১৯৬৭), একটি সুরের মৃত্যু (১৯৭৪), জীবন একটি দুর্ঘটনা (১৯৮১)। ঝর্ণা দাশ পুরকায়স্থ: মুক্তিযুদ্ধের অশ্রুত বাঁশি, গোধূলি রং খেলা (১৯৬৬), অলকাপুরী (১৯৮৬), মখমলে আলপিন (১৯৮৯), নূর হোসেনের পদধ্বনি (১৯৯৪), নাইট কুইন। তাপস মজুমদার  : মঙ্গল সংহিতা (১৯৯৫), একটি দশ টাকার নোট (১৯৯৬), কেউ কাউকে চেনে না (১৯৯৭)। তাসাদ্দুক হোসেন : অরণ্য শিশির (১৯৬৩), বিকেলের শেষ প্রার্থনা (১৯৭৯), উত্তমাশা অন্তরীপে (১৩৮৪)। দিলারা জামান : অস্তরাগ (১৯৬২), আর্শিতে আমি (১৯৭৬), মৃগয়ায় শরবিদ্ধ (১৯৮৬)। দিলারা হাশেম : হলুদপাখির কান্না (১৯৭০), সিন্ধুপারের উপাখ্যান (১৯৮৮), নায়ক (১৯৮৯)। দৌলতুন্নেসা খাতুন : গল্পমঞ্জুরী (১৯৬২)। নাসরীন নঈম : এখানে পিঞ্জর (১৯৮৪), আর যে পারি না মিলাপু (১৯৯০), সহসা দুপুরে দহন (১৯৯১), অপত্য স্নেহের ডালপালা (১৯৯৯)। নাজমা জেসমিন চৌধুরী : অন্য নায়ক (১৯৮৫), মেঘ কেটে গেল (১৯৮৮)। নাসরিন জাহান : স্থবির যৌবন (১৯৮৫), বিচূর্ণ ছায়া (১৯৮৮), সূর্য তামসী (১৯৮৯), পথ, হে পথ (১৯৮৯), সারারাত বিড়ালের শব্দ (১৯৯১), আশ্চর্য দেবশিশু (১৯৯৫), পুরুষ রাজকুমারী (১৯৯৬), সম্ভ্রম যখন অশ্লীল হয়ে ওঠে (১৯৯৭), এলেন পোর বিড়াল (২০০৬), নারীবাদী গল্প (২০১০), ছেলেটি যে মেয়ে মেয়েটি তা জানে না (২০১০)। নেয়ামাল বাসির : ধূপছায়া (১৯৬৯)। নির্মলেন্দু গুণ : আপন দলের মানুষ (১৯৮৫)। নীলিমা ইব্রাহীম : রমনা পার্কে (১৯৬৪)। পাপড়ি রহমান : লখিন্দরের অদৃষ্ট যাত্রা (২০০০), হলুদ মেয়ের সীমান্ত (২০০১), মহুয়া পাখির পালক (২০০৪), অষ্টরম্ভা (২০০৭), ধূলিচিত্রিত দৃশ্যাবলি (২০১০)। পারভেজ হোসেন : ক্ষয়িত রক্তপুতুল (১৯৯০), বৃশ্চিকের জাল ও অন্যান্য (১৯৯৩), স্বনির্বাচিত শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৯৪)। পূরবী বসুর : পূরবী বসুর গল্প, আজন্ম পরবাসী, সে নহি নহি, নিরুদ্ধ সমীরণ। প্রশান্ত মৃধা : কুহকবিভ্রম (২০০০), ১৩ ও অবশিষ্ট ছয় (২০০১), আরও দূর জন্ম-জন্মান্তর (২০০৪), শারদোৎসব (২০০৬), বইঠার টান (২০০৬), গল্পের খোঁজে (২০১১)। ফরিদা হোসেন : অজন্তা (১৯৬৫), ঘুম (১৯৮৫), শাড়ী (১৯৮৭), একটি শীতল মৃত্যু (১৯৮৭), হিমালয়ের দেশে (১৯৯৪), নির্বাচিত গল্প (১৯৯৪), ক’জনার কথা (১৯৯৪)। বন্দে আলী মিয়া : তাসের ঘর। বশীর আল হেলাল : আনারসের হাসি (১৯৭৪); প্রথম কৃষ্ণচূড়া। বিপ্রদাশ বড়–য়া : সাদা কফিন (১৯৮৪), যুদ্ধজয়ের গল্প (১৯৮৫), গাঙচিল (১৯৮৭), নদীর নাম গণতন্ত্র (১৯৮৭), বীরাঙ্গনার প্রেম (১৯৮৭), উল্কি একটি প্রেমের গল্প (১৯৮৮), স্বপ্নমিছিল (১৯৮৯), আকাশে প্রেমের বাদল (১৯৮৯), স্বপ্ন সমুদ্রে বনদেবীরা আছে (১৯৯০), নির্বাচিত প্রেমের গল্প (১৯৯০), আমি মুক্তিযুদ্ধ সমর্থন করি (১৯৯১), স্বপ্নসুন্দরী (১৯৯৪), অলৌকিক চুম্বন (১৯৯৫), আমি একটি স্বপ্ন কিনেছিলাম (১৯৯৬), ফিরে তাকাতেই দেখি বঙ্গবন্ধু (১৯৯৭)। বুলবন ওসমান : প্রত্যালীঢ় (১৯৬৭), মুকুরে মুখ (১৯৬৯)। বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর : অবিচ্ছিন্ন (১৯৬০), দূর দূরান্ত (১৯৬৮), কণ্ঠস্বর (১৩৭৪), বিশাল ক্রোধ (১৩৭৬), মু-হীন মহারাজ (১৯৭৪), এক ধরনের যুদ্ধ (১৯৮৪), গণতন্ত্রের প্রথম দিন ও অন্যান্য গল্প (১৯৯২), বিপ্লব দীর্ঘজীবী থেকে (১৯৯৭)। ভাস্কর চৌধুরী : তাঁর রক্তপাতের ব্যাকরণ (১৯৮৪), বাষট্টি বিঘা নদী (১৯৮৬), কোথায় নিবাস (১৯৮৬), পতনের সময় (১৯৮৭)। মকবুলা মনজুর : সায়াহ্ন যূথিকা (১৯৭৮), শকুনেরা সবখানে (১৯৮৯), নক্ষত্রের তলে (১৯৮৯), মকবুলা মনজুরের প্রেমের গল্প (১৯৮৯), একুশ ও মুক্তিযুদ্ধের গল্প (১৯৯১), দিনরজনী (১৯৯৩)। কিশোর গল্প : রঙিন মাছ (১৯৮২), অপূর্ব উপহার (১৯৮২), নদীর ওপারে মেলা (১৯৮৬), কিশোর মহাভারত (১৯৮৭), সূর্য কিশোর (১৯৮৮), নির্বাচিত কিশোর গল্প (১৯৮৯), ছোট ছোট রূপকথা (১৯৮৯)। মঈদ-উর রহমান : ময়ূরের পা (১৯৫৮)। মঈনুল আহসান সাবের : পরাস্ত সহিস (১৯৮২), এরকমই (১৯৯০), ভিড়ের মানুষ (১৩৯৬), অরক্ষিত জনপদ (১৯৮৩), আগমন সংবাদ (১৯৮৪), চারদিক খোলা (১৯৮৫), স্বপ্নযাত্রা (১৯৮৪), নির্বাচিত (১৯৯৯)। মনিরা কায়েস : মাটিপুরাণ পালা (১৯৯৯), জলডাঙ্গার বায়োস্কোপ (২০০১), ধুলোমাটির জন্মসূত্র (২০০৪), কথামনুষ্যপুরাণ (২০০৭)। মশিউল আলম : আবেদালির মৃত্যুর পর (২০০৭) গল্পটি রচনা করেন। তাঁর অন্যান্য গল্প রূপালি রুই ও অন্যান্য গল্প (১৯৯৪), আমি শুধু মেয়েটিকে বাঁচাতে চেয়েছিলাম (১৯৯৯), মাংশের কারবার (২০০৪)। মঞ্জু সরকার : অবিনাশী আয়োজন (১৯৮২), মৃত্যুবাণ (১৯৮৫), পুরাতন প্রেম ও অন্যান্য গল্প (১৯৮৬), উচ্ছেদ উচ্ছেদ খেলা (১৯৯০), আনন্দ যাত্রা (১৯৯৫), অপারেশন জয় বাংলা (১৯৯৭), মঙ্গাকালের মানুষ। মঞ্জুশ্রী চৌধুরী : জাগ্রত যে ভালো (১৯৮৪), বিষকন্যা (১৯৮৯), সোনার খাঁচা (১৯৮৯)। মতিন উদ্-দীন আহমদ : চালাক হওয়ার পয়লা কেতাব (১৯৫৮), তিন চেরাগ তিন শামাদান ফাউ (১৯৬৪), এ-তো বড় রঙ্গ যাদু (১৯৬৯)। মযহারুল ইসলাম : তাল তমাল (১৯৫৯)। মফিজ উদ্দীন আহমদ : রূপ (১৯৬৬), স্টার সার্কাস (১৯৭৭)। মবিন উদ্দীন আহমদ : কলঙ্ক (১৯৪৬), হোসেন বাড়ীর বৌ (১৯৫২), ভাঙাবন্দর (১৯৫৪)। মহীবুল আজিজ : গ্রাম উন্নয়ন কমপ্লেক্স ও নবিতুনের ভাগ্যচাঁদ (১৯৮৮), দুগ্ধগঞ্জ (১৯৯৭), মৎস্যপুরাণ (২০০০), আয়নাপড়া (২০০৬)। মাফরুহা চৌধুরী : অরণ্যগাথা ও অন্যান্য গল্প (১৯৭৬), কোথাও ঝড় (১৯৮০), স্খলিত নক্ষত্র (১৯৮১), বিমূর্ত বৃত্তে (১৯৮৪), বিদীর্ণ প্রহর (১৯৮৩), নিঃশর্ত করতালি (১৯৮৪), মাফরুহা চৌধুরীর প্রেমের গল্প (১৯৮৬), শব নিয়ে বসবাস (১৯৮৭), ছায়া পথের মানচিত্র (১৯৮৮), মাফরুহা চৌধুরীর নির্বাচিত গল্প (১৯৯০)। মামুন হুসাইন : শান্ত সন্ত্রাসের চাঁদমারি (১৯৯৫), মানুষের মৃত্যু হলে (২০০০), আমার জানা ছিল কিছু (২০০০), বালক বেলার কৌশল (২০০২), নিরুদ্দেশ প্রকল্পের প্রতিভা (২০০২), কয়েকজন সামান্য মানুষ (২০০৩), একটি স্মারকগ্রন্থের জীবনপ্রণালী, রাষ্ট্রযন্ত্রের খেলাধুলা, যুদ্ধাপরাধ ও ভূমিব্যবস্থার অস্পষ্ট বিবরণ (২০১১), অন্ধজনের জাতককথা (২০১৪)। মাহবুব তালুকদার : সুবর্ণ জয়ন্তী। মাহমুদুল হক : প্রতিদিন একটি রুমাল (১৯৯৪), নির্বাচিত গল্প (২০১০)। মাহ্বুব-উল্ আলম : মফিজন (১৯৪৬), তাজিয়া (১৯৪৬), পঞ্চঅন্ন (১৯৫৩), গাঁয়ের মায়া (১৯৪৯)। মালিহা খাতুন : মনের রং লাল (১৯৮৭), মন ভালো নেই (১৯৯০), স্মৃতি তুমি বেদনা (১৯৯৩)। মুনিরা চৌধুরী : মেঘ ও অতলান্তে (১৯৮৪), বুনোঘ্রাণ (১৯৮৪), সূর্য মৃত্তিকা (১৯৮৫), নির্জন (১৯৮৬)। মুস্তাফা পান্না : লোকসকল (১৯৮৪), কৃষ্ণপক্ষের প্রতিবাদ (১৯৮৯)। মিন্নাত আলী : আমার প্রথম প্রেম (১৯৫৯), মফস্বল সংবাদ (১৯৫৮), যাদুঘর (১৯৬৯), চেনা ও অচেনা (১৯৮০)। মিরজা আবদুল হাই : ছায়া-প্রচ্ছায়া (১৯৭৬), বিস্ফোরণ (১৯৭৮), ফিরে চলো (১৯৮১)। মুশতারী শফী : একটি যুদ্ধ (১৯৭৩), শঙ্খচিলের কান্না (১৯৮৩), জীবনের রূপকথা (১৯৮৪), এমনও হয় (১৯৮৫)। মোহাম্মদ ফজলুল করীম : কাজল দীঘির পদ্ম (১৯৬৯), রূপের মোহে (১৯৬৯)। রবীন্দ্র গোপ : রোদহীন বসতি (১৯৮০), পরাণের স্বাধীনতা (১৯৮৬), স্বপ্ন ও চাঁদের কঙ্কাল (১৯৯০), মুক্তিযুদ্ধের গল্প (১৯৯৭), যুদ্ধজয়ের গল্প (১৯৯৭)। রশীদ হায়দার : নানকুর বোধি (১৯৬৭), অন্তরে ভিন্ন পুরুষ (১৯৭৩), মেঘেদের ঘরবাড়ি (১৯৮২), উত্তরকাল (১৯৮৭), তখন (১৯৮৭), আমার প্রেমের গল্প (১৯৮৮), পূর্বাপর (১৯৯৩), মুক্তিযুদ্ধের নির্বাচিত গল্প (২০০৫)। রাজিয়া মাহবুব : খাপছাড়া (১৯৫৮), স্বনির্বাচিত গল্প (১৯৬২), দূরভাষিণী (১৯৬৯), মুখরিত গহনে (১৯৮৩)। রিজিয়া রহমান : অগ্নিস্বাক্ষরা (১৯৬৭), নির্বাচিত গল্প (১৯৭৮), হারকিউলিসের আগুন (২০১০)। রাবেয়া খাতুন : মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী, আমার এগারোটি গল্প, নির্বাচিত ছোটগল্প। রাহাত খান : অন্তহীন যাত্রা (১৯৭৫), অনিশ্চিত লোকালয় (১৩৮০), ভালো মন্দের টাকা (১৯৮১), আপেল সংবাদ (১৯৮৩)। রেজাউর রহমান : অভয়ারণ্য (১৯৮৬), বাক্সবন্দী সব (১৯৮৭), বিস্মৃত এক ভুবন (১৯৮৮), ওরা কোথায় যে যায় (১৯৮৯), সেই কলস পেয়ে যাবেই (১৯৯৪), স্মৃতির মানচিত্রে তারার ফাঁদ (১৯৯৫)। লায়লা সামাদ : দুঃস্বপ্নের অন্ধকারে (১৩৭৩), কুয়াশার নদী (১৩৭৬), অরণ্যে নক্ষত্রের আলো (১৯৭৫), অমূর্ত আকাক্সক্ষা (১৯৭৮)। শামসুদ্দীন আবুল কালাম : শাহেরবানু (১৯৪৫), পথ জানা নেই (১৯৪৮), অনেক দিনের আশা (১৯৪৯), ঢেউ (১৯৫৩), দুই হৃদয়ের তীর (১৯৫৫), পুঁই ডালিমের কাব্য (১৯৫৩)। শামসুল ইসলাম : কুসুমের ঋতু (১৯৬৬), সিগারেট ও অন্যান্য গল্প (১৯৭৬)। শওকত ওসমান : উপলক্ষ্য (১৯৬৮), উভশৃঙ্গ (১৯৬৮), জুনু আপা ও অন্যান্য গল্প (১৯৫১), নেত্রপথ (১৯৬৮), পিঁজরাপোল (১৯৫১), প্রস্তরফলক (১৯৬৪), সাবেক কাহিনী (১৯৫৩), এবং তিন মির্জা (১৯৮৬), নির্বাচিত গল্প (১৯৮৪), মনিব ও তাহার কুকুর (১৯৮৬), বিগত কালের গল্প (১৯৮৭), শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৭৪), পুরাতন খঞ্জর (১৯৮৭), হন্তারক (১৯৯১), রাজপুরুষ (১৯৯৪)। শাহরিয়ার কবির : একাত্তরের যীশু (১৯৮৫), মহাবিপদ সংকেত (১৯৯০), জনৈক প্রতারকের কাহিনী (১৯৯৬)। শাহাদুজ্জামান : কয়েকটি বিহ্বলগল্প (১৯৯৬), পশ্চিমের মেঘে সোনার সিংহ (১৯৯৯), কেশের আড়ে পাহাড় (২০১২), অন্য এক গল্পকারের গল্প নিয়ে গল্প (২০১৪)। শাহেদ আলী : জিবরাইলের ডানা (১৯৫৩), একই সমতলে (১৯৬৩), শা’নযর (১৯৮৬), অতীত রাতের কাহিনী (১৯৮৬), অমর কাহিনী (১৯৮৭)। শহীদ আখন্দ : জনতায় নির্জন (১৩৮০ বাং), অনিবার্য বান্ধব (১৯৭৯), যখন পারি না (১৯৮২), হাল্কা হাসির গল্প (১৯৯৬)। শহীদ সাবের : এক টুকরো মেঘ (১৯৫৫), ক্ষুদে গোয়েন্দার অভিযান (১৯৫৮)। শহীদুল জহির : পারাপার (১৯৮৫), ডুমুর খেকো মানুষ অন্যান্য গল্প (২০০০), ডলু নদী হাওয়া ও অন্যান্য গল্প (২০০৪)। সরদার জয়েনউদ্দীন : নয়ান ঢুলী (১৯৫২), বীরকণ্ঠির বিয়ে (১৯৫৫), খরস্রোত (১৯৫৫), অষ্টপ্রহর (১৯৭০)-এরপর বেলা ব্যানার্জীর প্রেম (১৩৮০)। সাইয়িদ আতীকুল্লাহ্ : বুধবারের রাতে (১৯৭৩)। সাদ কামালী : নিঃশব্দ অন্তিমে (১৯৯২), অভিব্যক্তিবাদী গল্প (১৯৯৬), উপকথার আপেল (১৯৯৬), আগুনের গ্রহণ (২০০০)। সাদেকা শফিউল্লাহ : নিষিদ্ধ সুখের যন্ত্রণা (১৯৭৮), যুদ্ধ অবশেষে (১৯৮০), শর্তহীন নিঃশব্দে (১৯৮১), অনুভূতির রং (১৯৮২), কলঙ্কের সুগন্ধ (১৯৮৪), অক্ষম বৈঠায় (১৯৮৫), চয়ন (১৯৮৭), যন্ত্রণার সঞ্চয় (১৯৯০), তার তরে (১৯৯১)। সুশান্ত মজুমদার : রাজা আসেনি বাদ্য বাজাও (১৯৮৪), ছেঁড়াখোঁড়া জমি  (১৯৮৫), শরীরে শীত ও টেবিলে গু-াপা-া (১৯৮৮), জন্ম-সাঁতার (১৯৯৮)। সুচরিত চৌধুরী : আকাশে অনেক ঘুড়ি (১৯৬১)। সিকান্দার আবু জাফর : যাদুর কলস (১৯৬৮)। সুব্রত বড়–য়া : জোনাকী শহর (১৯৭০), কাচপোকা (১৯৭৫), অনধিকার (১৯৭৭), আত্মচরিত ও অন্যান্য গল্প (১৯৮৯), ভালোবাসা ভালোবাসা (১৯৮৯), তৃণা (১৯৯৩)। সেলিনা হোসেন : উৎস থেকে নিরন্তর (১৯৬৯), জলবতী মেঘের বাতাস (১৯৭৫), খোল করতাল (১৯৮২), পরজন্ম (১৯৮৬), মানুষটি (১৯৯৩), নির্বাচিত গল্প (১৯৯৩), মতিজানের মেয়েরা (১৯৯৫), মুক্তিযুদ্ধের গল্প (২০০০), আকাশপরী (২০১২)। সেলিম মোরশেদ : কাটা সাপের মু-ু (১৯৯৩), বাঘের ঘরে ঘোগ (২০০৮)। সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ্ : নয়নচারা (১৯৪৫), দুই তীর ও অন্যান্য গল্প (১৯৬৫)। সৈয়দ ইকবাল : একদিন বঙ্গবন্ধু ও অন্যান্য গল্প (১৯৮৬), ভালোবাসার পাঁচ পা (১৯৮৭)। সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম : স্বনির্বাচিত শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৯৪), থাকা না থাকার গল্প (১৯৯৫), প্রেম ও প্রার্থনার গল্প (২০০৫)। সৈয়দ মুজতবা আলী  : চাচা-কাহিনী (১৩৫৯), শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৬১), শ্রেষ্ঠ রম্যরচনা (১৯৬২)। সৈয়দ রিয়াজুর রশীদ : আগুনের বিপদ আপদ (১৯৯৪), শাদা কাহিনী (১৯৯৬)। সৈয়দ শামসুল হক : তাস (১৯৫৪), শীতবিকেল (১৯৫৯), আনন্দের মৃত্যু (১৯৬৭), প্রাচীন বংশের নিঃস্ব সন্তান (১৯৮১), প্রেমের গল্প (১৯৯০), শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৯০), গল্প সমগ্র (২০০১)। হরিপদ দত্ত : সূর্যের ঘ্রাণে ফেরা (১৯৮৫), একটি পুরাতন উর্দি (১৯৮৮), কালবেলার গল্প (২০০৫), গল্প সমগ্র (২০০৫)। হাজেরা নজরুল : জোনাকীর আলো (১৯৬৮), ফসিলে সূর্যগ্রহণ (১৯৮৬), সুবর্ণসখী (১৯৮৩), সময়ের ফুল (১৯৮৩), ঘাসের পাখনায় আমার পালক (১৯৯০)। হারুন হাবীব : বিদ্রোহী ও আপন পদাবলী (১৯৮৫), লালশার্ট ও পিতৃপুরুষ (১৯৮৫), অন্ধ লাঠিয়াল (১৯৯৯), স্বর্ণপক্ষ ঈগল, গল্পসপ্তক। হাসনাত আবদুল হাই : একা এবং একসঙ্গে (১৯৭৭), যখন বসন্ত (১৯৭৭), নির্বাচিত গল্প (১৯৮৯), শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৯৪)। হাসান আজিজুল হক : সমুদ্রের স্বপ্ন ও শীতের অরণ্য (১৯৬৪), নামহীন গোত্রহীন (১৯৭৫), আমরা অপেক্ষা করছি (১৯৮৯), রোদে যাবো (১৯৯৫), পাতালে হাসপাতালে (১৯৮১), মা মেয়ের সংসারে (১৯৯৭), নির্বাচিত গল্প (১৯৮৭), রাঢ়বঙ্গের গল্প (১৯৯১), হাসান আজিজুল হকের শ্রেষ্ঠ গল্প (১৯৯৫), স্বনির্বাচিত গল্প (২০১২)। হাসান হাফিজুর রহমান : আরো দুটি মৃত্যু (১৯৭০)। হেলেনা খান : ফসলের মাঠ (১৯৬৭), বৃষ্টি যখন নামলো (১৯৭৮), কালের পুতুল (১৯৭৮), একাত্তরের কাহিনী (১৯৯০), পাপড়ির রং বদালায় (১৯৯১), নির্বাচিত গল্প (১৯৯৩), ছায়া কালো কালো (১৯৯৭), কারাগারের ভেতরে ও বাইরে (১৯৯৭)। হুমায়ুন আজাদ : যাদুকরের মৃত্যু (১৯৯৬)। হুমায়ূন আহমেদ : খাদক, একটি নীল বোতাম, জীবনযাপন, খেলা, অসুখ, ফেরা। হুমায়ুন কাদির : একগুচ্ছ গোলাপ ও কয়েকটি গল্প (১৯৬৬), আদিম অরণ্যে এক রাত্রি (১৯৭০), শীলার জন্য সাধ (১৯৭৯)। হুমায়ূন মালিক : ধ্রৌমযজ্ঞ (২০০৫), গোলাপসংহিতা (২০০৬)। হোসনে আরা শাহেদ: গিন্নীর ডায়েরী (১৯৮৬), জীবন থেকে (১৯৮৬), তির্যক (১৯৯২), জীবনানন্দের জামিন (১৯৯০), ঊষ্ণ চা, শীতল হৃদয় (২০০১), কেন এ দুয়ারটুকু (১৯৮৩)।

সূত্র : চিহ্ন-৩২, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।


নিউজটি অন্যকে শেয়ার করুন...

আর্কাইভ

business add here
© VarsityNews24.Com
Developed by TipuIT.Com